বুধবার, ০৩ মার্চ ২০২১, ০১:৩৯ পূর্বাহ্ন

অ্যাম্বুলেন্সের ভিতরে নবজাতকের লাশ: পথে বাবাসহ আরো ৬ জনের মৃত্যু

অ্যাম্বুলেন্সের ভিতরে নবজাতকের লাশ: পথে বাবাসহ আরো ৬ জনের মৃত্যু

ডেস্ক রিপোর্ট, ৯ সেপ্টেম্বর 

নবজাতকের লাশ নিয়ে ফেরার পথে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় অ্যাম্বুলেন্সের ড্রাইভারসহ পরিবারের পাঁচ সদস্য নিহত হয়েছে। মর্মান্তিক এক সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন তারা। ঘটনাটি ঘটেছে আজ বুধবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের উজিরপুর উপজেলার আটিপাড়া নামক স্থানে।

লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্স, কাভার্ড ভ্যান ও এমএম পরিবহন কম্পানির একটি বাসের মধ্যকার ত্রিমুখী সংঘর্ষে হতাহতের ঘটনা ঘটেছে। নিহতদের মধ্যে দুইজন নারী এবং বাকি চারজন পুরুষ। একই পরিবারের নিহত সকলের বাড়ি ঝালকাঠি সদর উপজেলার নবগ্রাম ইউনিয়নে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ঢাকার উত্তরা জাপান বাংলাদেশ সিনসিন হাসপাতাল থেকে গ্রামের বাড়ি ঝালকাঠীর উদ্দেশ্যে আরিফ হোসেন তার তিনদিনের নবজাতক মেয়ে তামান্নার লাশ নিয়ে অ্যাম্বুলেন্স যোগে রওনা হন। এসময় অ্যাম্বুলেন্সে থাকা আরিফ (৩৫) তার ছোট ভাই তারেক (২৫), মা কহিনুর বেগম (৬৫) ছোট বোন শিউলি বেগম (৩০) শ্যালক নজরুল (৩৫) ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছে। এ দুর্ঘটনায় গাড়িচালক নিহত হয়েছে। নিহত অ্যাম্বুলেন্স চালকের নাম আলমগীরের বাড়ি কুমিল্লা।

ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা অনিক নামক অ্যাম্বুলেন্স (ঢাকা মেট্রো-ছ-৭১১৭-১৩)-এর সাথে বরিশাল থেকে ছেড়ে আসা মেসার্স গাজী রাইস কাভার্ডভ্যান (ঢাকা মেট্রো-ট ১১৬৩৬৮) এবং পিছন থেকে মায়া পরিবহন (খুলনা মেট্রো ব ১১-০১৭১)- এর সাথে ত্রিমুখী সংঘর্ষ হয়। তাৎক্ষনিক উজিরপুর ফ্যায়ার সার্ভিস ও মডেল থানা পুলিশ উপস্থিত হয়ে নিহতদের উদ্ধার করে।

উজিরপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. জিয়াউল আহসান জানান, অ্যাম্বুলেন্সটিতে এক শিশুর মৃতদেহ নিয়ে ঝালকাঠি ফিরছিলেন স্বজনরা। অ্যাম্বুলেন্সটিতে মৃতদেহ ও চালকসহ মোট ৭ জন ছিলেন।

এসময় কাভার্ড ভানের পেছনে থাকা যাত্রীবাহী এম.এম পরিবহন নামের একটি বাস ওই কাভার্ড ভ্যানের উপর আছড়ে পড়ে। এতে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় এ্যাম্বুলেন্সে থাকা চালকসহ ৬ যাত্রীর। একজন বেঁচে গেলেও তার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছে পুলিশ।

অপরদিকে দুর্ঘটনার ফলে বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কে সকল ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকায় রাস্তার দুই প্রান্তে অসংখ্য যানবাহনের দীর্ঘ লাইন পড়ে। এতে যাত্রী এবং শ্রমিকদের ভোগান্তি পোহাতে হয়। ঘণ্টা খানেক পরে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়। এদিকে নিহতদের বাড়িতে শোকের মাতম বইছে।খবর কালের কন্ঠ

Please Share This Post in Your Social Media

Comments are closed.

© All rights reserved © 2020-21 npnews71.com
Developed BY Akm Sumon Miah