বুধবার, ১২ মে ২০২১, ০৫:৪৬ অপরাহ্ন

এবার শেখ হাসিনাকে ‘আওলাদে আউলিয়া’ বললেন হুইপ স্বপন

এবার শেখ হাসিনাকে ‘আওলাদে আউলিয়া’ বললেন হুইপ স্বপন

এবার শেখ হাসিনাকে ‘আওলাদে আউলিয়া’ বললেন হুইপ স্বপন

সম্প্রতি সরকারদলীয় হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আরবি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেছেন। তিনি ইসলামের ইতিহাসে এক অনন্য উচ্চতায় আসীন হয়েছেন। তাই শেখ হাসিনার নাম উচ্চারণ করার পূর্বে তার প্রতি সম্মানসূচক একটি শব্দ উচ্চারণ করতে চাই, ‘হযরত শেখ হাসিনা’ তোমাকে অভিবাদন।

এবার প্রধানমন্ত্রীকে ‘আওলাদে আউলিয়া’ বলে মন্তব্য করেছেন তিনি। রোববার (৯ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে এক স্ট্যাটাসে এমন মন্তব্য করেন হুইপ স্বপন। ওই স্ট্যাটাসে শেখ হাসিনাকে ‘হযরত’ বলার ব্যাখ্যা দিয়েছেন তিনি।

রোববার বিকেল ৩টা ৩২ মিনিটে একটি দীর্ঘ স্ট্যাটাস দেন আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন। স্ট্যাটাসের শুরুতে ২০০৮ সালে নিজের অভিজ্ঞতার আলোকে আওয়ামী লীগ, বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার প্রতি মানুষের নেতিবাচক ধারণা তুলে ধরেন। এরপর এসব ধারণার যুক্তিপূর্ণ জবাব দিয়েছেন তিনি। জবাব দিতে গিয়ে তিনি লেখেন, ‘শেখ হাসিনা তার শরীরে আউলিয়া পরিবারের রক্ত বহন করছেন। তিনি আওলাদে আউলিয়া।’

হুইপ স্বপন আরও বলেন, ‘শেখ হাসিনা পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়েন, তাহাজ্জুদের নামাজ পড়েন, কোরআন তেলাওয়াত করেন, হজ করেছেন বহুবার। সংখ্যা ও অর্থের দিক থেকে বিশ্বে সর্বোচ্চ পরিমাণ মসজিদ নির্মাণ করছেন। গ্রাম পর্যন্ত ইসলামি শিক্ষা কেন্দ্র প্রবর্তন করে সহিহ কোরআন শিক্ষার ব্যবস্থা করেছেন, বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের উন্নয়ন করেছেন। ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেছেন, মাদরাসা শিক্ষার অভাবনীয় উন্নয়ন করছেন। আলেমদের রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি, সম্মান ও সব সরকারি চাকরিতে প্রবেশের সুযোগ করে দিয়েছেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘সব শিক্ষাব্যবস্থায় ধর্মীয় শিক্ষাকে বাধ্যতামূলক করে তার ওপর গুরুত্বারোপ করে চলেছেন প্রধানমন্ত্রী। সব ইসলামি প্রতিষ্ঠান ও স্থাপনার নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছেন। হজ ব্যবস্থাপনার অভূতপূর্ব উন্নয়ন করেছেন। ইসলামের কল্যাণে তার মহৎ কর্মের ফিরিস্তি লিখলে একটি গবেষণা গ্রন্থ রচিত হবে। এরপরও তাকে এবং আওয়ামী লীগারদের মুসলমান মানতে তারা নারাজ।’

হুইপের এই স্ট্যাটাসে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন ১ হাজার ২০০ জন (সোমবার দুপুর ১টা পর্যন্ত)। মন্তব্য করেছেন দুইশোর অধিক।
তবে হুইপের এই স্ট্যাটাসের সব প্রতিক্রিয়ায় দেখা গেছে ইতিবাচক। কোনো নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া চোখে পড়েনি। সবাই কমেন্টে হুইপের যুক্তির ভূয়সী প্রশংসা করেছেন। রকিবুল ইসলাম ঐতিহ্য নামে একজন লিখেছন, ‘এর চেয়ে ভাল যুক্তি আর কেউ দেখাতে পারবে বলে মনে হয় না। তৃণমূলের ভোটের রাজনীতি নিয়ে যাদের কোন জ্ঞান নেই তারাই শুধু সমালোচনা করেছে এই কয়েকদিন। আশা করছি তাদের মুখে এই স্টাটাস একটা চপেটাঘাত। ধন্যবাদ ভাই। সময়ের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কথাগুলি আপনি সেদিন সংসদে বলেছেন।’

আরেকজন লিখেছেন, ‘ধর্মকে জানতে হলে তার সঠিক তথ্য উপাত্ত সমৃদ্ধ ইতিহাস জানার কোনো বিকল্প নেই। খুবই স্বল্পজ্ঞান, অর্বাচিন, অযৌক্তিকদের সমালোচনায় কি বা আসে যায়। মড় ধযবধফ.’

প্রসঙ্গত, ৩ ফেব্রুয়ারি রাতে জাতীয় সংসদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ‘হযরত’ সম্বোধন করেন সংসদের হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন। ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়ার সভাপতিত্বে সংসদ অধিবেশনে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনীত ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এ সম্বোধন করেন।

এরপর থেকেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এ নিয়ে শুরু হয় ব্যাপক সমালোচনা। অনেকেই হুইপ স্বপনকে নিয়ে কটূক্তি করছেন।

-জাগো নিউজ

Please Share This Post in Your Social Media

Comments are closed.

© All rights reserved © 2020-21 npnews71.com
Developed BY Akm Sumon Miah