শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৫৭ অপরাহ্ন

এসআই নুরের ঘুষ গ্রহন

ভয়ভীতি দেখিয়ে পুলিশের ঘুষ গ্রহণ

রংপুরের পীরগঞ্জ থানার এসআই নুর ইসলামের বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহন এবং মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে হয়রানি করার অভিযোগ উঠেছে। এঘটনার সুষ্ঠু তদন্তসহ নুর ইসলামের বিরুদ্ধে রেঞ্জ ডিআইজি ও পুলিশ সুপারের কাছে লিখিত আবেদন করেছেন দুই ভুক্তভোগি।

বুধবার (৬ মার্চ) শফিকুল ইসলাম রিংকু ও শরিফুল ইসলাম নামে দুই যুবকের দেয়া আবেদনের সাথে ঘুষ গ্রহনের ভিডিও ফুটেজও দেয়া হয়। বৃহস্পিতিবার (৭ মার্চ) সকাল থেকে বিষয়টি জানাজানি হলে এ নিয়ে পুলিশ প্রশাসনে তোলপাড় চলছে।

ডিআইজি ও এসপির কাছে দেয়া লিখিত আবেদন সূত্রে জানা গেছে, পীরগঞ্জের ফতেহপুর এলাকার মৃত আবুল কাশেমের পুত্র শফিকুল ইসলাম রিংকু এবং ওসমানপুরং গ্রামের আব্দুল হাকিমের পুত্র শরিফুল ইসলাম ৩০/০৬/১৩ ইং তারিখে দলিল নং ৫০৭৩ এবং বিগত ১৩/০৬/১৩ ইং তারিখে দলিল নং ৪৫৩২ নং দলিল মূলে মালিক মোঃ ছিদ্দিকুর রহমান গং এর নিকট থেকে মোট ৫ দশমিক ৩৭একর সম্পত্তি ক্রয়ের মাধ্যমে ভোগদখল করে আসছেন।

কিন্তু পীরগঞ্জ থানার এসআই (নিঃ) মোঃ নুর ইসলাম (বিপি-৮০০০০৭২৯১৭) তাদেরকে জমি থেকে উচ্ছেদের দুরভিসন্ধিমূলকভাবে গত বছরের ২৮ জুন পীরগঞ্জ উপজেলার প্রজাপাড়া এলাকার আলতাব হোসেনের পুত্র মোতাবেরুল ইসলাম ওরফে সৌরভকে বাদি বানিয়ে পীরগঞ্জ থানায় একটি মামলা করান (নং-৪৮/২৮২)। সৌরভের নামে ওই এলাকায় কোন জমিজমা নেই।

আবেদনে ভুক্তভোগিরা উল্লেখ করেন, মামলাটির যোগসাজসিভাবে তদন্তকারী অফিসার হিসেবে এসআই নুরুল ইসলাম নিজেই নিযুক্ত হন। নিযুক্ত হওয়ার পর ভূক্তভোগিদের কাছ থেকে ২ লাখ টাকা চাদা দাবি করে। টাকা না দিলে তাদের বিরুদ্ধে কড়া অভিযোগপত্র দাখিল করার হুমকি দেন। এরই মধ্যে এসআই নুরুল ইসলাম বিভিন্ন ভয়ভীতি প্রদর্শন এবং বিভিন্ন মোকাদ্দমায় জড়িত করার হুমকি দিয়ে ১৮ হাজার টাকা ঘুষ গ্রহন করেন।

লিখিত আবেদনে বলা হয়, এসআই নুর ইসলামের দাবিকৃত চাঁদার টাকা দেয়ার জন্য বিভিন্নভাবে হুমকি দিচ্ছে। না দিলে কড়া চার্জশিট ও অন্যান্য মামলায় ফাসিয়ে দেয়ার হুমকি দিচ্ছে। এ কারণে তাদের স্বাভাবিক জীবন যাপন দুর্বিসহ ও অনিরাপদ হয়ে উঠেছে।

লিখিত আবেদনে তাদের বিরুদ্ধে অনীত মামলার বিষয়টি সুষ্ঠু তদন্ত করে উক্ত এসআই থেকে ওই মামলা থেকে পরিবর্তন এবং ওই এসআইয়ের ঘুষ গ্রহনের বিষয়টি যথাযথ তদন্ত করে তার বিরুদ্ধে শাস্তিমুলক ব্যবস্থা নিশ্চিত করার দাবি জানানো হয়েছে।

এদিকে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, লিখিত আবেদনকারী শফিকুল ইসলাম রিংকু ও শরিফুল ইসলাম পেশায় সাংবাদিক। তারা দীর্ঘদিন ধরে সাংবাদিকতা করছেন। এব্যাপারে তাদের সাথে কথা বলে  তারা জানান, আমাদেরকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে হয়রানি করার বিষয়ে গত ৬ মার্চ রংপুর রেঞ্জ ডিআইজি ও পুলিশ সুপারের কাছে ভিডিও চিত্রসহ লিখিত আবেদন করেছি। আশা করি প্রশাসন আমাদের হয়রানি থেকে মুক্ত করে নিরাপদ জীবন যাপন নিশ্চিত করবেন। পাশাপাশি অভিযুক্তের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি নিশ্চিত করবেন।

এব্যাপারে এসআই নুর ইসলাম ঘুষ গ্রহণের বিষয় প্রসঙ্গে  ‘অভিযোগকারীরাই আমাকে টাকা দেয়ার প্রলোভন দেখিয়েছে। তারা দুজনই চাঁদাবাজির মামলার আসামী। চাঁদাবাজির সময় আমি তাদেরকে উত্তেজিত জনতার হাত থেকে উদ্ধার করেছি। তারা চাঁদাবাজি মামলার আসামী। এখন তারাই আমার বিরুদ্ধে মিথ্যে অভিযোগ তুলে ভয়ভীতি হুমকি দিচ্ছেন। আমি তাদের ব্যাপারে সাধারণ ডায়েরী করে উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের অবগত করেছি।


© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | এনপিনিউজ৭১.কম
Developed BY Rafi It Solution