October 21, 2020, 4:14 pm

Just In : আমাদের দেশের আইনের শাসনের ডেলিভারীকারীরা আপোষকামিতা করে : সুলতানা কামাল
আমাদের দেশের আইনের শাসনের ডেলিভারীকারীরা আপোষকামিতা করে : সুলতানা কামাল করোনা সন্দেহ: রংপুর থেকে একজনকে ঢাকায় স্থানান্তর   
আমাদের দেশের আইনের শাসনের ডেলিভারীকারীরা আপোষকামিতা করে : সুলতানা কামাল
রাণীশংকৈলে পিপিআর ভ্যাক্সিনেশন ক্যাম্পেইনের উদ্বোধন স্কুল ও মাদ্রাসায় বার্ষিক পরীক্ষা হচ্ছে না : শিক্ষামন্ত্রী সৈয়দপুরে নষ্ট মিটারে মাসে কোটি টাকার বিদ্যুৎ বিল: উর্দুভাষী ক্যাম্প নিয়ে নেসকোর তেলেসমাতি কারবার নীলফামারীতে ইবতেদায়ী মাদরাসা জাতীয়করণের দাবিতে মানববন্ধন নীলফামারীতে ৫ যুব উদ্যোক্তাকে ১ লাখ ৯৪ হাজার ৫শ টাকার সহযোগিতা প্রদান সৈয়দপুর হাসপাতালে আবারো চালু করতে যাচ্ছে ‘সুভা’র স্বেচ্ছায় সেবাদান কার্যক্রম সৈয়দপুরে ট্রাকের ধাক্কায় নারী শ্রমিক নিহত হাতীবান্ধায় নৌকা নিয়ে শ্যামল ও শাহাদাতের বিজয় রংপুরের ৩টি ইউপি নির্বাচনে দুটিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী একটিতে নৌকা জয়ী আওয়ামী সরকারের অধীনে কখনোই সুষ্ঠু নির্বাচন হতে পারে না
কিশোরগঞ্জে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষনের অভিযোগে মামলা: প্রভাষক গ্রেফতার

কিশোরগঞ্জে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষনের অভিযোগে মামলা: প্রভাষক গ্রেফতার

ফাইল ছবি

শাহজাহান আলী মনন, নীলফামারী ১৬ অক্টোবর

নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার নয়ানখাল স্কুল এ্যান্ড কলেজের ইংরেজী বিষয়ের প্রভাষক সৈয়দ পাপলু মিয়ার (৩২) বিরুদ্ধে উক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এক ছাত্রীকে ধর্ষনের অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর বাবা বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) তারাগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ আসামী প্রভাষক সৈয়দ পাপলু মিয়াকে রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার চতরা ইউনিয়নের কাঁটাদুয়ার গ্রামের নিজবাড়ি হতে গ্রেফতার করেছে। পাপলু ওই গ্রামের সৈয়দ আব্দুর রশিদের ছেলে।

মামলা সূত্র ও ছাত্রীর পরিবারের অভিযোগ মতে, উক্ত প্রভাষক নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার বাহাগিলি ইউনিয়নের নয়ানখাল স্কুল এ্যান্ড কলেজের ইংরেজি বিষয়ের প্রভাষক। তিনি বাসা ভাড়া নিয়ে থাকতেন কলেজ সংলগ্ন রংপুর জেলার তারাগঞ্জ উপজেলার থানাপাড়া এলাকায়। ছাত্রীটি কিশোরগঞ্জ উপজেলার বাহাগিলি ইউনিয়নের উত্তরপাড়ার বাসিন্দা ও উক্ত কলেজের এইচএসসি দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী।
করোনাকালিন সময়ের আগে কলেজ চলাকালিন প্রভাষক পাপলু মিয়া মেয়েটিকে ডেকে বিয়ের প্রস্তাব দেয়। মেয়েটি তার অভিভাবকদের সঙ্গে কথা বলতে বলে প্রভাষককে। এ অবস্থায় প্রভাষক মেয়েটির সঙ্গে মোবাইলে নিয়মিত কথা বলতেন ও প্রেমের সর্ম্পক গড়ে তুলেন। করোনাকালিন সময় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে গেলে প্রভাষক মেয়েটির বাবার কাছে বিয়ে প্রস্তাব দেয়। মেয়ের বাবা প্রভাষককে তার অভিভাবকদের নিয়ে আসতে বলেন। এ অবস্থায় প্রভাষক মেয়েটিকে প্রাইভেট পড়ার জন্য তার ভাড়া বাসায় নিয়মিত আসতে বলেন। কলেজ বন্ধ থাকায় মেয়েটি অন্যান্য শিক্ষার্থীদের সঙ্গে গিয়ে প্রাইভেট পড়তো ওই প্রভাষকের নিকট। এ অবস্থায় গত ৫ মে সকাল ১১টায় মেয়েটি অন্যান্য দিনের মতো প্রাইভেট পড়তে গেলে প্রভাষকের বাসায় গিয়ে দেখে সে ছাড়া আর কোন শিক্ষার্থী প্রাইভেট পড়তে আসেনি। এ সময় প্রভাষক তাকে অচিরেই বিয়ে করবে বলে জড়িয়ে ধরে ও ইচ্ছার বিরুদ্ধে ধর্ষন করে।

এ অবস্থায় মেয়েটি ঘটনাটি তার অভিভাবকদের অবগত করলে প্রভাষককে তারা দ্রুত বিয়ে করার জন্য অনুরোধ করেন। করোনা সংকট স্বাভাবিক হলে বিয়ে করবে বলে সময় পাড় করতে থাকেন প্রভাষক। এমন অবস্থায় প্রভাষক হঠাৎ করে ভাড়া বাসা ছেড়ে দিয়ে তার নিজ বাড়ি পীরগঞ্জে চলে গিয়ে মেয়েটির সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। বিষয়টি মেয়ের পরিবার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ ও ম্যানেজিং কমিটিকে অবগত করলে তারা উল্টো ঘটনা মিথ্যে বলে মেয়ের পরিবারকে কোন সহযোগীতা করেনি বলে মেয়েটি অভিযোগ করেন। এমনকি বিভিন্ন প্রভাবশালীদের হুমকী ধমকিতে তারা মামলা করার সাহস পায়নি এতোদিন বলে জানায়।

মেয়ের বাবা জানান, সকল হুমকী ভয় ভীতি পেছনে রেখে গত বুধবার (১৪ অক্টোবর) সন্ধ্যায় মেয়েকে সঙ্গে নিয়ে মামলা করার জন্য কিশোরগঞ্জ থানায় যাই। পুলিশ সকল ঘটনা শুনে রাতে সেখানে একটি জিডি দায়ের করেন এবং ধর্ষনের ঘটনাটি রংপুরের তারাগঞ্জ উপজেলা এলাকায় হওয়ায় তারাগঞ্জ থানায় যোগাযোগ করে আমাদের সেখানে পৌছে দেয়া হয়। এরপর তারাগঞ্জ থানায় মামলা দেয়।

মেয়ের বাবা আরো বলেন, তারাগঞ্জ থানার ওসি ওই রাতেই পুলিশ ফোর্স নিয়ে ধর্ষককে ধরতে তার গ্রামে অভিযান চালায় ও বৃহস্পতিবার ভোরে ধর্ষক প্রভাষককে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে। নির্যাতিতা ছাত্রীর বাবা আরো বলেন, বিয়ের আশ্বাস দিয়ে প্রভাষক আমার মেয়ের ইজ্জত নষ্ট করেছে। আমি তার উপযুক্ত বিচার চাই।

তারাগঞ্জ থানার ওসি ইসমাইল হোসেন বলেন, ধর্ষণের অভিযোগে প্রভাষক সৈয়দ পাপলু মিয়ার বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৯(১) মামলা রুজু করা হয়েছে (মামলা নম্বর ৮ তারিখ ১৫/১০/২০২০)। ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য আদালতের মাধ্যমে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। পাশাপাশি গ্রেফতারকৃত আসামীকেও আদালতে প্রেরন করা হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

Comments are closed.

© All rights reserved © 2020-21 npnews71.com
Developed BY Akm Sumon Miah