মঙ্গলবার, ০৩ অগাস্ট ২০২১, ০৭:১৭ পূর্বাহ্ন

নগরীর ধাপ এলাকায় জমি দখলকে কেন্দ্র করেউত্তে জনা, আদালতের আদেশ অমান্যের অভিযোগ

নগরীর ধাপ এলাকায় জমি দখলকে কেন্দ্র করেউত্তে জনা, আদালতের আদেশ অমান্যের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক

রংপুর মহানগরী ধাপ জেল রোড এলাকায় জমি দখল করে বাসার প্রাচীর ও ঘর নির্মাণকে কেন্দ্র করে জমির মালিকানা দাবিকারি দু’পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। জমির দখল বুঝে না দিয়ে আদালতের আদেশ অমান্য করে জমি বিক্রেতা অবৈধভাবে পাকাঘর ও সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করছে।

বুধবার দুপুরে নিজ বাসভবনে সংবাদ সম্মেলন করে জমি উদ্ধারের দাবি জানিয়েছেন ভুক্তভোগী নজরুল ইসলাম। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি কান্না জড়িত কন্ঠে অভিযোগ করেন, নগরীর ধাপ জেল রোড এলাকায় তিনি অনেক কষ্টের উর্পাজিত টাকায় ১৯৭২ সালে প্রতিবেশী যতিন্দ্র নাথ রায়ের ১২৪১ (সাবেক) ও ১২৪৩ (সাবেক) দাগের ২১ শতক জমি ক্রয় করেন।

o

জমির দলিল সম্পাদনের পর জমি বুঝে নিতে গিয়ে দেখতে পায় জমি আছে সাড়ে ১৮ শতক। ক্রেতা এ ব্যাপারে আপত্তি জানালে বিক্রেতা বাকী আড়াই শতক জমি বুঝে দেয়ার আশ্বাস দেন। এরপর বিক্রেতারা ১৯৭৬ সালে নজরুল ইসলামের কাছে ১২৪৩ (সাবেক) দাগের ৭ শতক জমি বিক্রি করেন এবং বাকী আড়াই শতক জমি পরে দেবেন বলে কথা দেন। বিক্রেতা যতিন্দ্র নাথ মারা গেলে তার পুত্র রাজেন্দ্র বিষয়টি অস্বীকার করে ওই দাগের জমি সেটেলমেন্ট অফিসে নিজ নামে রেকর্ড করে নেয়। এ ব্যাপারে নজরুল ইসলাম ৩০ ধারায় মামলা করলে রায় ক্রেতার পক্ষে যায়।

নজরুল আরো জানান, সিনিয়র সহকারী জজ আদালত মিঠাপুকুরে একটি মামলা (মামলা নং-অন্য/২৮৯/২০০৮) দায়ের করেন। মামলায় বিজ্ঞ আদালত ওই জমির উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেন। রাজেন্দ্র নাথ রায় ওই আদেশ উপেক্ষা করে সেখানে পাকাঘর নির্মাণ ও প্রাচীর নির্মাণের উদ্যোগ নেয়। আদালতের নির্দেশ অমান্য করায় বাদী নজরুল ইসলাম একটি মিস ভাইলেশন কেস (কেস নং মিস-৩৭/২০০৯) দায়ের করেন। এরপরেও আদালতের নিষেজ্ঞা অমান্য করে আবারো বিরোধপূর্ণ জমিতে দেয়াল নির্মাণের কাজ শুরু করলে দু’পক্ষ একে অপরের মুখোমুখি অবস্থা করছে। এ ব্যাপারে নজরুল ইসলাম সুবিচারের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট সহযোগিতা কামনা করেন।


এ দিকে জমির মালিকানা দাবিকারি দু’পক্ষের উত্তেজনায় এলাকায় অপ্রীতিকর ঘটনার আশংকা করছেন স্থানীয়রা। এব্যাপারে প্রয়াত যতিন্দ্র নাথ রায়ের ছেলে রাজেন্দ্র নাথ রায় আদালতের নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি অস্বীকার করেন। তিনি বলেন, আমার জমিতে কোন নিষেধাজ্ঞা নেই। আদালত নজরুল ইসলাম জমিতে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছেন। আমরা নিজেদের জমিতেই নির্মাণ কাজ করছি


© All rights reserved © 2020-21 npnews71.com
Developed BY Akm Sumon Miah