শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:৩৮ পূর্বাহ্ন

প্রথমে সম্পর্ক স্থাপন পরে ফাঁদে ফেলে দেখা করতে ডেকে অপহরণ করত তারা

প্রথমে সম্পর্ক স্থাপন পরে ফাঁদে ফেলে দেখা করতে ডেকে অপহরণ করত তারা

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

প্রথম টার্গেট বিভিন্ন কৌশলে সম্পর্ক স্থাপন করা।কিছুদিন পরে সুযোগ বুঝে দেখা করতে ডেকে অপহরণ করে পরিবারের কাছ থেকে মুক্তপণ দাবি।এমন একটি অপহরণকারী চক্রের ৩ জনকে গ্রেফতার করেছে রংপুর মহানগর পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) রাতে নগরীর সাতগাড়া মিস্ত্রীপাড়া এলাকার মর্তুজা নামের একজনের বহুতল ভবনের নীচ তলা থেকে অপহৃত একজন উদ্ধার করেছে।এসময় এ চক্রের ৩ সদস্য রতন মােহন্ত, রফিকুল ইসলাম ওরফে রফিক বানিয়া ও মীরা বেগম ওরফে মিতা কে গ্রেফতার করা হয়।পরে ভিকটিম অসুস্থ থাকায় তাকে চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

পুলিশসুত্রে জানা যায়, নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলার উত্তর সােনাখুলী গ্রামের ব্যাসদেব অপহরণ করা হয়।পরে অপহৃতের মামা রাতে মহানগর কোতোয়ালি থানায় এসে অভিযোগ করে তার ভাগ্নেকে অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবি করছে এবং অপহরণকারীচক্র রংপুরেই আছেন বলে জানান।পরে গভীর রাতে কোতোয়ালি থানার একটি দল নগরীর বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে সাতগাড়া মিস্ত্রীপাড়া থেকে অপহৃতকে উদ্ধার ও ৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়।

মহানগর পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (অপরাধ) আবু মারুফ হোসেন জানান,এই চক্রটি সহজ সরল মানুষদের সাথে বিভিন্নভাবে সম্পর্ক তৈরী করে দেখা
করার কথা বলে অপহরণ করে ভিকটিমের পরিবারের নিকট টাকা দাবী করে এবং মুক্তিপণ নিয়ে ছেড়ে দেয়।গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে একটি নিয়মিত মামলা হয়েছে এবং এই সংঘবদ্ধ চক্রের প্রতিটি সদস্যকে আইনের আওতায় আনতে পুলিশের কার্যক্রম অব্যাহত আছে।


© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | এনপিনিউজ৭১.কম
Developed BY Rafi It Solution