বৃহস্পতিবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:৪৩ অপরাহ্ন

প্রেমিকাকে আইফোন কিনে দিতে বাবার সঙ্গে অপহরণ নাটক

প্রেমিকাকে আইফোন কিনে দিতে বাবার সঙ্গে অপহরণ নাটক

বগুড়ায় প্রেমিকার আইফোনের আবদার পূরণে আত্মগোপন করে অপহরণ নাটক সাজিয়ে বাবার কাছে মুক্তিপণ দাবি করেছে এক কলেজছাত্র। এ ঘটনায় ওই কলেজছাত্র ও তার বন্ধুকে আটক করেছে র‌্যাব।

তারা হলো সোনাতলা উপজেলার বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মকর্তা ওবায়দুল সরকারের ছেলে সরকারি আজিজুল হক কলেজের শিক্ষার্থী রাকিবুল হাসান রিয়াদ (১৯), তার সহপাঠী বন্ধু জয়পুরহাটের কালাই উপজেলার মোলামগাড়িহাটের প্রবাসী মইফুল আকন্দের ছেলে মুন্না হাসান (১৮)।

মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) তাদের অভিভাবকদের জিম্মায় দিয়ে মুচলেকা নেওয়া হয়। বগুড়া র‌্যাব-১২-এর কোম্পানি কমান্ডার (লেফটেন্যান্ট কমান্ডার) আব্দুল্লাহ আল মামুন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

র‌্যাব জানায়, রিয়াদের সঙ্গে এক মেয়ের প্রেমের সম্পর্ক আছে। প্রেমিকা তার কাছে একটি আইফোন উপহার চায়। আবদার পূরণের বিষয়ে মুন্নার সঙ্গে আলোচনা করে রিয়াদ জানতে পারে আইফোনের দাম প্রায় লাখ টাকা। তখন বন্ধুর পরামর্শে অপহরণ নাটক সাজিয়ে বাবা ওবায়দুল সরকারের কাছ থেকে মুক্তিপণ হিসেবে লাখ টাকা আদায়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

পরিকল্পনা অনুযায়ী ২৪ জুলাই সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে বাড়ি থেকে বের হয় রিয়াদ। এরপর থেকে তার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। রাতে বাড়ি না ফেরায় স্বজনরা বিভিন্ন স্থানে খোঁজ করেও সন্ধান পাননি। পরদিন রিয়াদের মা সোনাতলা থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন।

২৬ জুলাই সকালে রিয়াদের মোবাইল নম্বর থেকে বাবার মোবাইলে কল আসে। অপরপ্রান্ত থেকে বলা হয়, রিয়াদকে জীবিত ফেরত পেতে হলে এক লাখ টাকা লাগবে। তখন রিয়াদ কান্নাকাটি করে জানায় অপহরণকারীরা টাকার জন্য তাকে মারপিট করছে। ছেলের কান্না শুনে বাবা টাকা দিতে রাজি হন। সেই সঙ্গে ছেলে অপহরণ হয়েছে জানিয়ে বগুড়া র‌্যাবের সহযোগিতা চান ওবায়দুল।

ঘটনার তদন্ত করতে গিয়ে র‌্যাব জানতে পারে রিয়াদ ও তার বন্ধু মুন্না টাকা আদায়ের জন্য অপহরণ নাটক সাজিয়েছে। অবস্থান নিশ্চিত হওয়ার পর সোমবার মধ্যরাতে বগুড়ার দুপচাঁচিয়ায় অভিযান চালিয়ে দুই জনকে আটক করা হয়। পরে নাটক সাজানোর বিষয়টি স্বীকার করে তারা।

র‌্যাব কমান্ডার আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে রিয়াদ জানায় প্রেমিকাকে আইফোন কিনে দিতে অপহরণ নাটক সাজিয়ে বাবার কাছে মুক্তিপণ চেয়েছিল। পরিকল্পনা করে মোবাইল ফোন বন্ধ রেখে রিয়াদকে নিয়ে বগুড়া ও জয়পুরহাটের বিভিন্ন এলাকায় ঘুরেছে মুন্না। তাদেরকে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ভবিষ্যতে এমন কর্মকাণ্ডে জড়াবে না বলে মুচলেকা দিয়েছে তারা।


© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | এনপিনিউজ৭১.কম
Developed BY Rafi It Solution