শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১২:২০ অপরাহ্ন

প্রেমের বিরোধে প্রথমে বড় বোন পরে ছোট বোনকে হত্যা করে রিফাত

প্রেমের বিরোধে প্রথমে বড় বোন পরে ছোট বোনকে হত্যা করে রিফাত

নিজস্ব প্রতিবেদক, রংপুর ২০ সেপ্টেম্বর
প্রেমে বিরোধের জেরে রংপুরের গনেশপুরে প্রেমিকা ও তার ছোট বোনকে হত্যা করে আত্মহত্যার নাটক সাজায় প্রেমিক রিফাত। পুলিশের অনুসন্ধানে এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য বেড়িয়ে এসেছে। রোববার (২০ সেপ্টেম্বর) রাতে রংপুর মেট্টোপলিটন গোয়েন্দা পুলিশ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে উপ পুলিশ কমিশনার (গোয়েন্দা) আবু মারুফ হোসেন এ তথ্য জানান ।
সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, রংপুরে গনেশপুরে চাঞ্চল্যকর  স্কুলছাত্রী দুই বোন আত্মহত্যা করেনি তাদের পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে।
গত বৃহস্পতিবার রাত আটটার দিকে প্রেমের টানে সুমাইয়া আক্তার মিমের কাছে আসে আসামী রিফাত। মিমের চাচা-চাচী বাড়িতে না থাকায় চাচাতো ছোট বোনকে ম্যানেজ করে এক কক্ষে শারিরীক সম্পর্ক করে তারা। পরে অন্য ছেলের সাথে প্রেম করা নিয়ে মিম ও রিফাতের কথা-কাটাকাটি হয়। এতে উত্তেজিত হয়ে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে রিফাত। হত্যা ও ধর্ষণের ঘটনা অন্যখাতে প্রবাহিত করার জন্য  ঘরের সিলিং ফ্যানে ওড়না  গলায় পেচিয়ে ঝুলিয়ে আত্মহত্যার  নাটক সাজায়। হত্যার পর বাড়ি থেকে বের হওয়ার সময় সুমাইয়ার চাচাতো বোন মাওয়া আপু কোথায়  জিজ্ঞেস করলে ফেসে যাচ্ছে ভেবে তাকেও শ্বাসরোধ করে হত্যা করে আয়নার ভাঙ্গা দিয়ে গলায় আঘাত করে মেঝেতে ফেলে যায়।
তিনি আরও বলেন, মিম ও সিফাতের পাঁচ বছর থেকে প্রেমের সম্পর্ক ছিলো এবং সম্প্রতি মিম নানাবাড়ি গিয়ে অন্য ছেলের সাথে সম্পর্কে জড়িয়ে পরে। এটি জানতে পেরেই মুলত তাদের মনোমালিন্যের সৃষ্টি  হয়।
এদিকে তাদের দীর্ঘ দিনের সম্পর্কের প্রমাণ স্বরুপ অনেকগুলো চিঠি, গিফট, আসামীর ব্যবহৃত কয়েকটি মোবাইল ফোন ও কয়েক ধরনের সিমকার্ড উদ্ধার করেছে পুলিশ।
সংবাদ সম্মেলনে রংপুর মেট্টোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (অপরাধ) শহিদুল্লাহ কাওছার, অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিবি এন্ড মিডিয়া)  উত্তম প্রসাদ পাঠক, মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মজনু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য গত শুক্রবার দুপুরে রংপুরের গনেশপুর থেকে দুই বোনের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।  ঘটনার পর মীমের মোবাইল ফোনের সুত্র ধরে  রিফাতের সন্ধান পায় পুলিশ। তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় নিশ্চিত হয়ে পুলিশ নগরীর মধ্য বাবু খাঁ মহল্লা থেকে রিফাতকে গ্রেফতার করে।
এ ঘটনায় করা জান্নাতুল মাওয়ার পিতা মমিনুল ইসলামের করা হত্যা  মামলায় গ্রেফতার বড় বোনের প্রেমিক ও সহপাঠী মাহফুজুর রহমান রিফাত আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দী দিয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Comments are closed.

© All rights reserved © 2020-21 npnews71.com
Developed BY Akm Sumon Miah