মঙ্গলবার, ২৭ Jul ২০২১, ০৬:৪২ অপরাহ্ন

ফণীর গতিপথ বদল বয়ে যাবে রংপুর- নওগাঁ

ফণীর গতিপথ বদল বয়ে যাবে রংপুর- নওগাঁ

ঘূর্ণিঝড়ের পূর্বাভাস সংক্রান্ত ওয়েবসাইট ‘উইন্ডি ডটকম’ সুপার সাইক্লোন ফণীর যে সম্ভাব্য গতিপথ নির্ণয় করেছিল, তাতে কিছুটা পরিবর্তন হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২ মে) রাত থেকে সম্ভাব্য গতিপথে কিছুটা পরিবর্তন দেখা যাচ্ছে।

এর আগে বুধবার (১ মে) রাতে ‘উইন্ডি ডটকম’ যে গতিপথ জানিয়েছিল, সেখানে এই সুপার সাইক্লোনের কেন্দ্র শনিবার (৪ মে) সকালে রাজশাহী ও রংপুর অতিক্রম করার কথা ছিল। তবে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ‘উইন্ডি’র বিশ্লেষণ অনুযায়ী- শনিবার ভোরে ফণীর কেন্দ্র ভারতের মালদাহ’র বিভিন্ন এলাকা অতিক্রম করবে।

পরিবর্তিত এই সম্ভাব্য গতিপথ অনুযায়ী- নওগাঁ জেলার পোরশা উপজেলা ও রংপুর জেলা দিয়ে ফণীর কেন্দ্র অতিক্রম করার সম্ভাবনা রয়েছে। ‘উইন্ডি’র বিশ্লেষণ বলছে- শনিবার বেলা ১১টায় ফণীর কেন্দ্র পশ্চিমবঙ্গের সিউরি ও রাজনগর এলাকা অতিক্রম করতে পারে। বাংলাদেশের বিভাগীয় শহর রাজশাহী থেকে এর দূরত্ব প্রায় ২৫০ কিলোমিটার।

শনিবার বেলা ২টায় ফণীর কেন্দ্র অতিক্রম করতে পারে মালদাহর রামপুরহাট। চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা থেকে যার দূরত্ব প্রায় ১৭৭ কিলোমিটার এবং রাজশাহী থেকে ১৯০ কিলোমিটার। এদিন সন্ধ্যা ৬টায় এই ঘূর্ণিঝড়ের কেন্দ্রের অবস্থান থাকতে পারে মালদার ধুলিয়ান এলাকায়। চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে যার দূরত্ব হবে ৯৩ কিলোমিটার এবং রাজশাহী থেকে ১১০ কিলোমিটার।

এরপরেই ফণীর কেন্দ্র বাংলাদেশ অতিক্রম করতে পারে। শনিবার রাত ৮টায় এর অবস্থান হতে পারে নওগাঁ জেলার পোরশা উপজেলায়। রাত ১২টায় ফণীর কেন্দ্র আবার ভারতের দিকে গিয়ে বালুরঘাট অতিক্রম করতে পারে। বাংলাদেশের জয়পুরহাট থেকে এর দূরত্ব হবে প্রায় ৭০ কিলোমিটার।

শনিবার দিবাগত রাত ২টায় এই সুপার সাইক্লোনের কেন্দ্র রংপুর অতিক্রম করার সম্ভাবনা রয়েছে। রোববার (৫ মে) ভোরে এর কেন্দ্র অতিক্রম করবে ভারতের আসামের ধুবড়ি এলাকা। বাংলাদেশের রংপুর থেকে যার দূরত্ব প্রায় ১৩৯ কিলোমিটার।

উপকূলীয় অঞ্চলে ফণীর শক্তি বেশি থাকলেও দীর্ঘ স্থলভাগ অতিক্রম করে আসায় শনিবার নাগাদ এর শক্তি কিছুটা হ্রাস পাবে বলে আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হচ্ছে। তবে দেশজুড়ে ঝড়ো হাওয়া ও ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

এদিকে, ফণীর প্রভাবে শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে ১০ মিনিটের মতো ঝড়ো হাওয়া বয়ে যায়। পরে শুরু হয় গুঁড়িগুঁড়ি বৃষ্টি। দুপুর ১২টা থেকে ৩টা পর্যন্ত বৃষ্টি না হলেও আকাশে মেঘের ব্যাপক ঘনঘটা দেখা যায়। সাড়ে ৩টা থেকে শুরু হয় মাঝারি বৃষ্টিপাত।

রাজশাহী আবহাওয়া অধিদফতরের উচ্চ পর্যবেক্ষক শহিদুল ইসলাম জানান, বিকাল ৩টায় ৪ দশমিক ৬০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়। তবে বিকাল ৫টায় তা প্রায় ১০ মিলিমিটারে গিয়ে ঠেকেছে। আকাশে যেভাবে মেঘ দেখা যাচ্ছে, তাতে মাঝারি বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকতে পারে।


© All rights reserved © 2020-21 npnews71.com
Developed BY Akm Sumon Miah