রবিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০৪:২৭ পূর্বাহ্ন

বনানী ট্রাজিড ;  নিহত মোস্তাফিজারের দাফন সম্পন্ন

বনানী ট্রাজিড ;  নিহত মোস্তাফিজারের দাফন সম্পন্ন

এনপি নিউজ ৭১ ডেক্সঃ
ঢাকার বনানীতে এফআর টাওয়ারে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে পুড়ে মারা যাওয়া রংপুরের মোস্তাফিজার রহমানের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। শুক্রবার (২৯ মার্চ) জুমার নামাজের পর পীরগঞ্জ উপজেলার আলতাবনগরে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। পরে তার মরদেহ স্থানীয় কবরস্থানে দাফন করা হয়।
এরআগে শুক্রবার সকালে আগুনে পোড়া মোস্তাফিজার রহমানের মরদেহ গ্রামের বাড়ি কাংগুরাপাড়ায় পৌঁছালে তাকে শেষবারের মতো দেখার জন্য ছুটে আসে স্বজন ও প্রতিবেশিরা। তার আকাল মৃত্যুতে পরিবার-আত্মীয় স্বজন ও গ্রামবাসীদের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।
শুক্রবার আলতাবনগর কবরস্থান মাঠে নামাজে জানাজা শেষে ওই কবরস্থানে মোস্তাফিজুরের মরদেহ দাফন করা হয়। সেখানে অংশ নেন অসংখ্য মানুষ। তাদের মধ্যে ছিলেন পীরগঞ্জের ইউএনও টিএমএ মমিন ও মেয়র তাজিমুল ইসলাম শামীম।
নিহত মোস্তাফিজার রহমান রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার চতরা ইউনিয়নের কাংগুরপাড়া আলতাবনগর গ্রামের মরহুম আবদুর রশিদ মুন্সির ষষ্ঠ ছেলে। সে তাঁর স্ত্রী ও পাঁচ বছর বসয়ী কন্যা সন্তান মুজবিহা জাইন নিধিকে নিয়ে মতিঝিলের টিকাটুলীতে বসবাস করতেন।
মোস্তাফিজার রহমান এফআর টাওয়ারের অষ্টম তলায় ইমপেয়ার এমব্রোসিভ কোম্পানী লিমিটেড এ ব্যবস্থাপক হিসেবে চাকরি করতেন।
নিহতের বড় ভাই শহিদুল ইসলাম জানান, এফআর টাওয়ারের অষ্টম তলায় ‘এম্পায়ার এমব্রোসিভ কোম্পানী লিমিটেডের ম্যানেজার পদে কর্মরত ছিলেন মোস্তাফিজার। বৃহষ্পতিবার দুপুরের অগ্নিকান্ড থেকে বাঁচার আকুতি জানিয়ে ভগ্নিপতি প্রকৌশলী আবু বক্কর সিদ্দিক ও দু’বোন ফাহিমা এবং রহিমাকে ফোন করেছিল। পরে সিএমএইচএ থেকে তার মরদেহ সনাক্ত করা হয়।
উল্লেখ্য, এফআর টাওয়ারের অগ্নিকান্ডের ঘটনায় ২৫ জন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে অর্ধ শতাধিকেরও বেশি মানুষ। আহতরা কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল ও ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ রাজধানীর বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। হাসপাতাল, ফায়ার সার্ভিস ও ঘটনাস্থল সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
এফআর টাওয়ার ভবনটির নবম তলা থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। আগুন লাগার পর তা অন্যান্য তলায় ছড়িয়ে পড়লেও অষ্টম থেকে দশম তলা বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।


© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | এনপিনিউজ৭১.কম
Developed BY Rafi It Solution