October 25, 2020, 8:06 pm

Just In : আমাদের দেশের আইনের শাসনের ডেলিভারীকারীরা আপোষকামিতা করে : সুলতানা কামাল
আমাদের দেশের আইনের শাসনের ডেলিভারীকারীরা আপোষকামিতা করে : সুলতানা কামাল করোনা সন্দেহ: রংপুর থেকে একজনকে ঢাকায় স্থানান্তর   
আমাদের দেশের আইনের শাসনের ডেলিভারীকারীরা আপোষকামিতা করে : সুলতানা কামাল
ভোট কারচুপির অভিযোগে রংপুরের হরিদেবপুরে মেম্বার প্রার্থীর পুনরায় ভোট গ্রহনের দাবি রাণীশংকৈলে পিপিআর ভ্যাক্সিনেশন ক্যাম্পেইনের উদ্বোধন স্কুল ও মাদ্রাসায় বার্ষিক পরীক্ষা হচ্ছে না : শিক্ষামন্ত্রী সৈয়দপুরে নষ্ট মিটারে মাসে কোটি টাকার বিদ্যুৎ বিল: উর্দুভাষী ক্যাম্প নিয়ে নেসকোর তেলেসমাতি কারবার নীলফামারীতে ইবতেদায়ী মাদরাসা জাতীয়করণের দাবিতে মানববন্ধন নীলফামারীতে ৫ যুব উদ্যোক্তাকে ১ লাখ ৯৪ হাজার ৫শ টাকার সহযোগিতা প্রদান সৈয়দপুর হাসপাতালে আবারো চালু করতে যাচ্ছে ‘সুভা’র স্বেচ্ছায় সেবাদান কার্যক্রম সৈয়দপুরে ট্রাকের ধাক্কায় নারী শ্রমিক নিহত হাতীবান্ধায় নৌকা নিয়ে শ্যামল ও শাহাদাতের বিজয় রংপুরের ৩টি ইউপি নির্বাচনে দুটিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী একটিতে নৌকা জয়ী
বন্ধুকে ভিডিও কলে রেখে তরুণীর ‘আত্মহত্যা

বন্ধুকে ভিডিও কলে রেখে তরুণীর ‘আত্মহত্যা

ডেস্ক রিপোর্ট, ঢাকা ২৫ সেপ্টেম্বর     

দিলসাদ নাহার আচল (১৮), একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী। রাজধানীর খিলক্ষেত এলাকায় তার বাসা। সাফকাত নামে এক তরুণের সঙ্গে দিলসাদের দীর্ঘদিনের বন্ধুত্ব ছিল। গতকাল বৃহস্পতিবার সাফকাতের সঙ্গে মুঠোফোনে ভিডিও কলে রেখে কথা বলছিলেন তিনি। এর মধ্যে দুজনে ঝগড়ায় লিপ্ত হন। কথাকাটা কাটির এক পর্যায় বন্ধুকে ভিডিও কলে রেখেই আত্মহত্যা করেন দিলসাদ।

মৃতের মামা কাউছার জানান, দিলসাদের বাবার নাম দেলোয়ার হোসেন, মা শাহানাজ পারভীন। সাভারে একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ফ্যাশন ডিজাইনিং নিয়ে লেখা পড়া করতেন তার ভাগনী। খিলক্ষেত পশ্চিম কাওলায় নিজেদের ফ্লাটে পরিবারের সঙ্গে থাকতেন দিলসাদ। স্কুল জীবন থেকে সাফকাতের সঙ্গে তার বন্ধুত্ব ছিল। সেও অপর একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। বৃহস্পতিবার রাতে দুজন মুঠোফোনে ভিডিওকলে কথা বলছিল। এর মধ্যে তাদের ঝগড়া শুরু হয়, এর এক পর্যায়ে দিলসাদ ভিডিওকলে সাফকাতকে রেখেই গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে।

কাউছার আরও জানান, সাফকাত তার বড় ভাগনী শামসুননাহারের ফেসবুক মেসেঞ্জারে দিলসাদের কয়েকটি ছবি দিয়ে রাখে। কিন্তু সে ঘুমিয়ে থাকায় দেখতে দেরি হয়ে যায়। সকালে ঘুম ভাঙলে শামসুননাহার ছবিগুলো দেখে দিলসাদের ঘরের দরজা চাবি দিয়ে খুলে তাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায়। পরে তার বাবা-মাকে জানিয়ে বোনকে সেখান থেকে উদ্ধার করেন ঢামেকে নিয়ে গেলে চিকিৎসক দিলসাদকে মৃত ঘোষণা করেন।

শামসুননাহার জানান, ঘুমাতে যাওয়ার আগে দিলসাদ ও সাফকাতকে কথাকাটাকাটি করতে দেখেছিলেন তিনি। বিষয়টা বুঝেও উঠতে পারেননি। ঘুম থেকে সকালে উঠে নিজের বোনকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান তিনি। মামার বরাত দিয়ে তিনি বলেন, ‘আমার মামার অভিযোগ সাফকাতের কারণেই দিলসাদ আত্মহত্যা করেছে। ’ তার বিরুদ্ধে পুলিশ তদন্তের ব্যবস্থা করবেন তিনি।

Please Share This Post in Your Social Media

Comments are closed.

© All rights reserved © 2020-21 npnews71.com
Developed BY Akm Sumon Miah