বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২১, ০৪:৩৬ অপরাহ্ন

বর্তমান সরকার শিল্প-সংস্কৃতি বান্ধব সরকার : বিভাগীয় কমিশনার

বর্তমান সরকার শিল্প-সংস্কৃতি বান্ধব সরকার : বিভাগীয় কমিশনার

এনপিনিউজ৭১/স্টাফ রিপোর্টার/ রংপুর ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯

রংপুরের বিভাগীয় কমিশনার কেএম তারিকুল ইসলাম বলেছেন, বর্তমান সরকার শিল্প-সংস্কৃতি বান্ধব সরকার। দেশীয় সংস্কৃতির বিকাশে কাজ করছে। দেশের প্রত্যন্ত এলাকার শিল্পী, সাহিত্যিক ও গুণীজনদের সম্মানিত করছে। সেই ধারাবাহিকতায় শিল্পকলা একাডেমির এ আয়োজন প্রশংসনীয়। সাহিত্য, সংস্কৃতি, সংগীত ও সাংবাদিকতায় বিশেষ অবদান রাখায় দশ গুণীজনকে সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।


শুক্রবার রাতে রংপুর টাউন হল মিলনায়তনে রংপুর জেলা শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে সম্মাননা অনুষ্ঠান হয়েছে। রংপুর জেলা প্রশাসক ও জেলা শিল্পকলা একাডেমির সভাপতি মো. আসিব আহসানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি বক্তব্য রাখেন রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ আবদুল আলীম মাহমুদ, রংপুর জেলা পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার সরকার, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক তৌহিদুর রহমান টুটুল। স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা শিল্পকলা একাডেমির কালচারাল অফিসার নুঝাত তাবাসসুম রিমু।


বিভাগীয় কমিশনার তারিকুল ইসলাম আরো বলেন, তরুণ প্রজন্ম, তরুণ নৃত্য শিল্পী, সংগীত শিল্পী যারা আজকে এখানে পারর্ফম করবে তারা তো বিভিন্ন প্রতিযোগীতায় অংশগ্রহন করবে। রংপুর বাসির মুখ উজ্জল করবে, বাবা মায়ের মুখ উজ্জল করবে তোমাদের মনে একটি স্বপ্ন আশা থাকতে হবে।
বিভাগীয় কমিশনার আরো বলেন, আমরা যেনো এই ভাবে সরকারী সীকৃতি পাই। শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে যে সংবধনাটা দেয়া হয় এটা যেনো তোমরা পেতে পারো এমন একটি মন ও মানুষিকতা তোমাদের মাঝে সৃষ্টি হোক। রংপুরের শিল্পচর্চা রংপুরের যে নিজেস্ব বৌশিষ্ট সেটাকে এগিয়ে নিতে হবে। যারা আমাদের এই দেশটাকে উপহার দিয়েছে তাদের প্রতি কৃতঙ্গতা প্রকাশ করছি। ১৪ ডিসেম্বর এই দিনে আমাদের দেশের বুদ্ধিজীবিদের মেরে ফেলেছে। আমাদের ক্রিড়া জগতকে নিয়ে আমরা গর্ব করি। এ সময় অতিথিরা আকাশ সংস্কৃতির আগ্রাসন থেকে নতুন প্রজন্মকে দূরে রাখতে অভিভাবকসহ শিল্পী সমাজকে দেশীয় সংস্কৃতির চর্চা, বিকাশ ও প্রসারে সরকারকে সহযোগিতার পাশাপাশি সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলোকে তাদের কর্মকান্ড বাড়ানোর আহ্বান জানান।

 

অনুষ্ঠানে বিশেষ অবদানের জন্য নাট্যকলায় সিরাজুল ইসলাম সিরাজ (২০১৮), ইফতেখারুল আলম রাজ (২০১৯), কণ্ঠ সংগীতে তৃপ্তি দত্ত (২০১৮), নিজনুল ইসলাম খান (২০১৯), যন্ত্র সংগীতে বিনয় কুমার বণিক (২০১৮) সগির উদ্দিন বয়াতী (২০১৯), লোক সংস্কৃতিতে হারুন অর রশিদ (১৮), রমজান আলী সরকার (২০১৯) এবং সাংবাদিকতায় আলোকচিত্রী রণজিৎ দাস (২০১৮), সৃজনশীল সাংস্কৃতিক গবেষণায় মতিউর রহমান বসনিয়াকে (২০১৯) সনদ, ক্রেস্ট ও উত্তরীয়সহ জেলা শিল্পকলা একাডেমি সম্মাননা প্রদান করা হয়।
পরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের স্মরণে সাংস্কৃতিক পরিবেশনায় শিল্পকলা একাডেমির বিভিন্ন বিভাগের শিল্পীরা অংশ নেন।

এনপি৭১/মেহি

Please Share This Post in Your Social Media

Comments are closed.

© All rights reserved © 2020-21 npnews71.com
Developed BY Akm Sumon Miah