সোমবার, ০২ অগাস্ট ২০২১, ১১:২৫ অপরাহ্ন

জমিতে পুঁতে রাখা হয় ঢাকার ব্যবসায়ীকে, লাশ দেখিয়ে দিলো সেই পুলিশ সদস্য

জমিতে পুঁতে রাখা হয় ঢাকার ব্যবসায়ীকে, লাশ দেখিয়ে দিলো সেই পুলিশ সদস্য

এনপিনিউজ৭১/স্টাফ রিপোর্টার/ রংপুর ১৯ জানুয়ারি ২০২০

গৃহপরিচারিকার সন্ধান ও অর্থিক লেনদেনের জের ধরে রংপুরে এসে লাশ হলেন রাজধানীর ব্যবসায়ী ও আরবান হেলথ কেয়ারের অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ অফিসার তোশারফ হোসেন পপি। অপহরণের ৯ দিন পর রোববার ১৯ জানুয়ারি সকালে বদরগঞ্জের শ্যামপুর এলাকা থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ ।

১১ জানুয়ারি নিহত তোশারফের পূর্ব পরিচিত পুলিশ কনস্টেবল রবিউল ইসলাম তাকে অপহরণ করে গুম করেছিল। কাজের মেয়ের সন্ধান দেয়ার জন্য কনস্টেবল রবিউল ওই ব্যবসায়িকে রংপুর আসতে বলেন।

এ ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার রংপুর কোতয়ালী থানায় ব্যবসায়ীর ছোট বোন সাজিয়া আফরিন ডলি বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। পুলিশ মামলার সূত্র ধরে এবং মোবাইল ট্র্যাকিং করে রংপুর পুলিশ ট্রেনিং সেন্টারে কর্মরত পুলিশ কনস্টেবল রবিউলকে শুক্রবার রাতে আটক করে। পরে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে তার দুলাভাই সাইফুল ও তাদের বাসার কাজের ছেলে বিপুলকে গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারকৃতদের দেয়া তথ্য মতে রোববার সকালে বদরগঞ্জের শ্যামপুর এলাকায় রবিউলের বড় বোন লাবণী আক্তারের বাড়ির পাশে একটি আখ ক্ষেতে গর্থ থেকে হাত, পা ও মুখ গামছা দিয়ে বাধা অপহৃত তোশারফ হোসেন পপির লাশ উদ্ধার করা হয়।

আরপিএমপি’র অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার শহিদুল্লাহ কাওছার বলেন, তোশারফ হোসেন পপি ঢাকা থেকে জানিং করে রংপুরে এসে রবিউল তার বলেন বাড়িতে খাওয়া দাওয়া করে সিযোপিন নামের ঘুমের ওষুধ খাইয়ে অচেতন করার পর তাকে আঘাত করে হত্যা করে রবিউল ও তার লোকজন। পরে লাশটি বস্তাবন্দী করে নন্দন পুরের একটি চাষ করা জমিতে গর্ত করে পুঁতে রাখে।

তিনি জানান লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার শহিদুল্লাহ কাওছার জানান, প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে আর্থিক লেনদেন ও কাজের মেয়ের বিষয় নিয়ে বিরোধে তাকে হত্যা করা হয়েছে। বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে তদন্ত করা হচ্ছে।

এ ঘটনায় পপির ছোট বোন সাজিয়া আফরিন ডলি গেল বৃহস্পতিবার কোতোয়ালি থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের করলে রহস্য উন্মোচিত হয়। পুলিশ গ্রেপ্তার করে কনস্টেবল রবিউল হোসেন তার দুলাভাই সাইফুল ইসলাম ও পপির বাড়ির কাজের ছেলে বিপুলকে। পাঁচ দিনের রিমান্ডে নিয়ে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে এই হত্যাকান্ডের ঘটনাটি স্বীকার করে আসামিরা। শনিবার রাত থেকে রুদ্ধশ্বাস অভিযান চালিয়ে পুলিশ রবিউলের দেখানো সেই জমি থেকে লাশটি উদ্ধার করে। উদ্ধার করা হয় পপির ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটিও।


© All rights reserved © 2020-21 npnews71.com
Developed BY Akm Sumon Miah