শনিবার, ০৬ মার্চ ২০২১, ০৯:১৬ অপরাহ্ন

রংপুরে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে গৃহবধূকে মারপিটপূর্ব শত্রুতার জের ধরে গৃহবধূকে মারপিটঃ

রংপুরে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে গৃহবধূকে মারপিটপূর্ব শত্রুতার জের ধরে গৃহবধূকে মারপিটঃ

রনজিৎ দাস, রংপুর ১২ আগস্ট

রংপুর মহানগরীর ১৫ নং ওয়ার্ডের বিনোদপুর এলাকায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে গৃহবধূ মোছাঃ হালিমা খাতুন (৩৫) কে মারপিট করেন । গত (১০জুলাই) সোমবার আনুমানিক রাত ১০ টার দিকে বাবার বাসা থেকে শ্বশুর বাসায় ফেরার পথে এ ঘটনা ঘটে।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, মোছাঃ হালিমা খাতুনের স্বামী ঢাকায় চাকুরী করেন। ঈদ করার জন্য হালিমা খাতুন গ্রামের বাসায় আসেন। হালিমা খাতুনের বাবার বাসা আর শশুর বাসা একই এলাকায়। কিন্তু, জমি সংক্রান্ত বিষয়ে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে পথ রোধ করে মারপিট করেন।

আসামীরা হলেন, বিনোদপুর এলাকার মোসলেম উদ্দিন আব্দুল লতিফ মিয়া (৪৫), নগরীর ৩২ নং ওয়ার্ড মিলন পাড়া এলাকার মৃত আজিজার রহমান এর ছেলেসিদ্দিক মিয়া (৪০) আজিম উদ্দিনের স্ত্রী  মোছাঃ মজিদা বেগম (৬৫), মৃত সান্না মিয়ার মে শারমিন বেগম (২৫), আব্দুল লতিফের স্ত্রী পিয়ারী বেগম (৪০), শরিফুল ইসলামের স্ত্রী আছিয়া বেগম (৩৫), সিদ্দিক মিয়ার স্ত্রী আমেনা বেগম (৩৭) উভয় ১৫ নং ওয়ার্ড বিনোদপুর এলাকার।

হালিমার বাবা হাবিবুর রহমান জানান, আমার মেয়ের বাড়ি থেকে তার স্বামীর বাড়ি যাওয়ার পথে আসামীগণ তার পথ আটকায়ে বিভিন্ন ধরনের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ শুরু করে। আমার মেয়ে তাদেরকে জিজ্ঞেস করে। আপনারা আমাকে গালিগালাজ করতেছেন কেন জানতে চাইলেই। তখনই শুরু হয় এলো পাথাড়ি লাঠি, রড, ধারালো অস্ত্র ও খুর দিয়ে মারপিট শুরু করে। চিৎকার চেঁচামেচি শুনে ঘটনাস্থল থেকে আমার মেয়েকে উদ্ধার করে আহত অবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর আমি বাদী হয়ে রংপুর মেট্রো তাজহাট থানায় একটি এজাহার দায়ের করি।

ঘটনা সংক্রান্ত বিষয়ে তাজহাট থানার এস.আই আল-আমিন বলেন, আমি ঘটনাস্থলে গিয়েছিলাম। আহত হালিমা বেগম কে গুরুতর অবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে হালিমার বাবা বলেন মামলার প্রস্তুতি চলছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Comments are closed.

© All rights reserved © 2020-21 npnews71.com
Developed BY Akm Sumon Miah