মঙ্গলবার, ১৫ Jun ২০২১, ১২:২৮ পূর্বাহ্ন

রংপুরে ৫ম শ্রেনির ছাত্রীকে ধর্ষণ- আটক ৩

রংপুরে ৫ম শ্রেনির ছাত্রীকে ধর্ষণ- আটক ৩

এনপি নিউজ ডেক্স

রংপুর মহানগরীর পান্ডারদিঘি ধাপ কামারপাড়ায় একজন দিনমজুরের পঞ্চম শ্রেনি পড়–য়া কন্যাকে ধর্ষন করেছে মিন্টু রায়(৩২) নামের ২ সন্তানের জনক। এঘটনার প্রতিবাদে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসি থানা ঘেরাও করে বিচার দাবি করেছে। পুলিশ ঘটনাটি সালিশ বৈঠকের নামে ধামাচাপা দিয়ে ধর্ষনে সহযোগিতার অভিযোগে ৩ জনকে আটক করেছে। মামলায় আসামী করা হয়েছে ধর্ষক মিন্টু,স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও আওয়ামীলীগ নেতা হারাধন রায়সহ চারজনকে।

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কোতয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ রেজাউল ইসলাম জানান, নগরীর ৪ নং ওয়ার্ডের ধাপকামারপাড়ার দিন মজুর শাহজান মিয়াকে একই এলাকার ঝড়– রায়ের পুত্র ২ সন্তানের জনক মিন্টু গত ১৫ এপ্রিল দুপুরে জমিতে ঘাস কর্তনের জন্য শ্রমিক হিসেবে নেয়। শাহাজাহান জমিতে ঘাস কর্তন করতে থাকলে মিন্টু রায় শাহজাহানের বাড়িতে আসে এবং তার রুমে ঢুকে টিভি দেখারত অবস্থায় থাকা তার ৫ম শ্রেনি পড়য়া মেয়েকে ধর্ষন করে। এসময় শিশুটি চিৎকার করলে প্রতিবেশি আকতারা বানু ছুটে আসলে ধর্ষক মিন্টু রায় তড়িঘড়ি করে পালিয়ে যায়। এসময় শিশুটির মা জায়েদা বেগম অন্যের বাড়িতে কাজ করতে গিয়েছিলেন। ওসি জানান, কাজ শেষে বাড়িতে এসে মেয়ে এবং প্রতিবেশির মুখে শুনে ধর্ষনের ঘটনার জন্য পুলিশের কাছে যেতে চান শাহজাহান মিয়া।

কিন্তু ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রংপুর সিটি করপোরেশনের আওয়ামী কাউন্সিলর পরিষদের সাধারণ সম্পাদক, জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক হারাধন রায় হারা মিমাংসার দায়িত্ব নিয়ে কালক্ষেপন করতে থাকে। গত বুধবার রাতে মা জায়েদা বেগম বাদি হয়ে মিন্টু রায়, ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হারাধন হারা,  ধর্ষকের শ্যালক সম্ভূ রায়, টেংকু রায় ও মেহেদুল ইসলামকে আসামী করে মামলা করেছেন।ওসি জানান, ধর্ষনের ঘটনার ভিন্নখাতে প্রবাহিত করে ধর্ষককে সহযোগিতার অভিযোগে ধর্ষকের শ্যালক সম্ভূ রায়, টেংকু রায় ও মেহেদুল ইসলামকে আটক করা হয়েছে। তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

ধর্ষক ও কাউন্সিলরকে গ্রেফতারে চেস্টা চলছে। মেয়েটিকে উদ্ধার করে ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে রাখা হয়েছিল। পরে বৃহস্পতিবার  রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসাপাতালের ফরেনসিক বিভাগে তার ফরেনসিক পরীক্ষা করা হয়েছে।এ ব্যপারে ধর্ষিতা শিশুর পিতা শাহজাহান মিয়া জানান, মিন্টু তার জমিতে আমাকে ঘাস কাটার কাজে লাগিয়ে দিয়ে আমারই বাড়িতে ঢুকে আমার মেয়েকে ধর্ষন করলো। এখন আবার আমাকেই মামলা তুলে নেয়ার জন্য কাউন্সিলর হারাধন, ধর্ষক মিন্টুর শ্যালক সম্ভু ও টেংকু রায় চাপাচাপি করছে। হুমকি দিচ্ছে। আমি নিরাপত্বাহনিতায় ভুগছি। তিনি জানান, আমি ধর্ষককে গ্রেফতার করে ফাঁসি চাই। আমার পরিবারের নিরাপত্বা চাই।


© All rights reserved © 2020-21 npnews71.com
Developed BY Akm Sumon Miah