শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ১০:১৫ পূর্বাহ্ন

রংপুর সদর ও মিঠাপুকুরে নৌকার বিজয়

রংপুর সদর ও মিঠাপুকুরে নৌকার বিজয়

রংপুর অফিসঃ
রংপুর অনুষ্ঠিত হওয়া উপজেলা পরিষদে নির্বাচনের  দুইটিতেই বেসরকারি ফলাফলে জয় পেয়েছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ। দুই উপজেলাতে আওয়ামী লীগ সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থীর জয়ের সাথে ভরাডুবি ঘটেছে মনোনয়ন বঞ্চিত আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) প্রার্থীদের।
রোববার (২৪ মার্চ) রাতে ভোট গণনা শেষে রিটার্নিং কর্মকর্তা ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) সৈয়দ এনামুল কবীর এবং সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোঃ দেলোয়ার হোসেন রংপুর সদর ও মিঠাপুকুর উপজেলা নির্বাচনের বেসরকারি ফলাফল ঘোষণা করেন।
এদিকে রংপুর জেলার মিঠাপুকুর ও সদর উপজেলাতে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীরা জয়ী হলেও প্রতিদ্বন্দ্বিতার আভাস দেয়া আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীদের চরম ভরাডুবি হয়েছে। তবে রংপুর সদরে পুরুষ ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে জাতীয় পার্টির প্রার্থীরা লাঙ্গল প্রতীকে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।
ঘোষিত ফল অনুযায়ী- চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতীকে সাত হাজার তিন’শ ছয় ভোট বেশি পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন নাছিমা জামান ববি। তিনি পেয়েছেন ২৩ হাজার ৯২৫ ভোট। তার নিকটতম আওয়ামী লীগের স্বতন্ত্র (বিদ্রোহী) প্রার্থী ডাঃ দেলোয়ার হোসেন (হেলিকপ্টার) ১৬ হাজার ৬১৯ ভোট পেয়েছেন। এছাড়াও জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী ফারুক মিয়া লাঙ্গল প্রতীকে ভোট পেয়েছেন ১৪ হাজার ৩৩৩। জাতীয় পার্টির স্বতন্ত্র (বিদ্রোহী) প্রার্থী মাসুদ নবী মুন্না (মটরসাইকেল)  ৫ হাজার ৪১৮ভোট পেয়েছেন।
অন্যদিকে ভাইস চেয়ারম্যান পদে লাঙ্গল প্রতীকে বিজয়ী জাতীয় পার্টির মাসুদার রহমান মিলন পেয়েছেন ২৫ হাজার ৩৮০ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি স্বতন্ত্র প্রার্থী ওবাদুল ইসলাম চশমা প্রতীকে ১৩ হাজার ৭১৭ ভোট পেয়ে পরাজিত হয়েছেন।
মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২২ হাজার ভোটের বিশাল ব্যবধানে নির্বাচিত হয়েছেন জাতীয় পার্টির লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থী কাজলী বেগম। তিনি পেয়েছেন ৪২ হাজার ৫১০ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি স্বতন্ত্র প্রার্থী আর্জিনা বেগম প্রজাপতি প্রতীকে ২০ হাজার ১১ ভোট পেয়ে পরাজিত হয়েছে।
মিঠাপুকুর উপজেলা পরিষদে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জাকির হোসেন সরকার ১ লাখ ২১ হাজার ৫৬১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী অধ্যক্ষ মেজবাহুর রহমান মঞ্জু আনারস প্রতীকে পেয়েছেন মাত্র ৩৫ হাজার ৮০১ ভোট।
এছাড়া ভাইস চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের স্বতন্ত্র প্রার্থী বাবু নিরঞ্জন মহন্ত তালা প্রতীক ১ লাখ ৩ হাজার ৮৯২ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি টিউবওয়েল প্রতীকে সম্রাট মামুন পাশা পেয়েছেন ৪৯ হাজার ১৪৫ ভোট। এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে কলস প্রতীকে ৮৬ হাজার ৬৯৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন শামীমা আখতার জেসমিন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি ছিলেন মওদুদা আকতার দিনা। তিনি প্রজাপতি প্রতীকে পেয়েছেন ৭১ হাজার ২৫১ ভোট।
শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে রংপুর সদরে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) এবং মিঠাপুকুরে ব্যালেট পেপারের মাধ্যমে ভোট প্রদান করবেন ভোটাররা। দুই উপজেলাতে মোট ভোটার ছিল ৫ লাখ ৬ হাজার ৫৬৯ জন।  এরমধ্যে ভোট পরেছে শতকরা ৪০ ভাগ।
এরআগে গত ১৮ মার্চ রংপুর জেলার বদরগঞ্জ, তারাগঞ্জ, পীরগঞ্জ, কাউনিয়া, গঙ্গাচড়া এবং পীরগাছা উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে পীরগাছা উপজেলা ছাড়া বাকি সবগুলোতে জয়ের মালা পড়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিক নৌকার প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থীরা।


© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | এনপিনিউজ৭১.কম
Developed BY Rafi It Solution