বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১, ০৮:৫০ পূর্বাহ্ন

শুরু হচ্ছে আরপিএমপির বিট পুলিশিং কার্যক্রম

শুরু হচ্ছে আরপিএমপির বিট পুলিশিং কার্যক্রম

সাংবাদিক সম্মেলন করেন আরপিএমপির উপ-পুলিশ কমিশনার আবু মারুফ হোসেন। ছবি: এনপিনিউজ৭১

শরিফুল ইসলাম সুমন, বিশেষ প্রতিবেদক রংপুর ৩১ আগস্ট

প্রতিষ্ঠার দুই বছরের মাথায় আরও একটি সময়োপোযোগি পদক্ষেপ নিলো রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ। বিট পুলিশিং বাড়ি বাড়ি, নিরাপদ সমাজ গড়ি শ্লোগাণ নিয়ে মঙ্গলবার থেকে যাত্রা শুরু করছে বিট পুলিশিং। সকাল ১১ টায় এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন কমিশনার মোহাঃ আব্দুল আলীম মাহমুদ।

আরপিএমপির কমিশনার (ডিআইজি) মো. আব্দুল আলীম মাহমুদ জানিয়েছন, পুলিশের সেবাকে জনগনের দোড়গোড়ায় পৌঁছে দিতে সরাসরি থানা থেকে তৃণমূলে বিস্তৃতকরণ, ওয়ার্ড ওয়ার্ডে নিবিড় পুলিশিং, থানায় মোতায়েনকৃত জনবলেন সর্বোত্তম ব্যবহার, প্রান্তিক পর্যায়ে জনসম্পৃক্তির মাধ্যমে বিরাজমান সমস্যার প্রতিরোধ ও প্রতিকারমুলক ব্যবস্থা, অগ্রিম গোপন সংবাদ এবং গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহের সক্ষমতা বৃদ্ধি এবং জনগনের মধ্যে নিরাপত্তাবোধ তৈরি করার জন্য বিট পুলিশিংয়ের উদ্যোগ নিয়েছি আমরা। এজন্য বিট পুলিশিং গঠন ও কার্যক্রমের সমস্ত উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। থেকে অপারেশন শুরু হবে। এজন্য একটি নিবিড় চেইন অব কমান্ড কাঠামো তৈরি করা হয়েছে।

তিনি আরো জানান, বিট কর্মকর্তারা নিয়মিতভাবে বিট এলাকায় গমন এবং নির্দিস্ট সময়কাল পর্যন্ত অবস্থান করবেন। বিট কার্যালয়ে আহত সেবা গ্রহনকারীদের বক্তব্য শুনে সেখানে প্রয়োজনীয় পুলিশিং সেবা দিবেন। আগত জনগনের সাথে মতবিনিময় করে তথ্য সংগ্রহের পাশাপাশি এলাকায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটতে পারে সেই সময় বিষয়ে প্রতিরোধ ও প্রতিকারমুলক ব্যবস্থা গ্রহন করবেন।

এছাড়াও দিন রাত ২৪ ঘণ্টা বিট কর্মকর্তাদের মোবাইল ফোন খোলা থাকবে। যাতে মানুষ ২৪ ঘণ্টা তাদের সাথে যোগাযোগ রাখতে পারেন। বিট পুলিশিং কার্যক্রমকে কার্যকর করতে নগরবাসির সকল স্তরের মানুষের সহযোগিতা কামনা করেন পুলিশের এই কর্মকর্তা।

আরপিএমপির মিডিয়া বিভাগ জানিয়েছে, আরপিএমপির ৬ টি থানাকে বিট পুলিশিং এর জন্য ৫৫ টি বিটে ভাগ করা হয়েছে। এর মধ্যে কোতয়ালী থানায় ১৭ টি, তাজহাট, মাহিগঞ্জ , হারাগাছ, হাজিরহাট থানায় ৮ টি করে এবং পরশুরাম থানায় ৬টি বিট দেয়া হয়েছে। প্রতিটি বিটে একজন এসআই বিট ইনচার্জ, একজন এএসআই সহকারি বিট ইনচার্জ এবং ২ জন কনেস্টবল নিযুক্ত করা হয়েছে। প্রতিটি থানার অফিসার ইনচার্জগণ তার এলাকার বিটের কো-অর্ডিনেটর, থানার ইন্সপেক্টর(অপারেশন/তদন্ত) গণ সহকারি কো-অর্ডিনেটর, জোনাল সহকারী পুলিশ কমিশনার/অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনরা (অপরাধ), বিটের তদারকি কর্মকর্তা এবং উপ-পুলিশ কমিশনার(অপরাধ) বিটের ফোকাল পয়েন্ট কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।

এদিকে সন্ধ্যায় এ নিয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করেন আরপিএমপির উপ-পুলিশ কমিশনার আবু মারুফ হোসেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত উপ পুলিশ-কমিশনার শহীদুল্লাহ কাওছার, উত্তম প্রসাদ পাঠক ও আলতাফ হোসেন প্রমুখ।

Please Share This Post in Your Social Media

Comments are closed.

© All rights reserved © 2020-21 npnews71.com
Developed BY Akm Sumon Miah