শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:৫০ পূর্বাহ্ন

শেখ কামাল ছিলেন লাখ-কোটি তরুণের দীপ্ত-প্রজ্বলিত শিখা: কাদের

শেখ কামাল ছিলেন লাখ-কোটি তরুণের দীপ্ত-প্রজ্বলিত শিখা: কাদের

নিউজ ডেস্কঃ বাংলাদেশের রক্তাক্ত বিশ্বাসঘাতকতার ইতিহাসের সবচেয়ে কালিমালিপ্ত অধ্যায় ৭৫ এর ১৫ আগস্ট বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। শেখ কামাল বহুমুখী সৃজনশীল প্রতিভার অধিকারী ও লাখ-কোটি তরুণের দীপ্ত-প্রজ্বলিত শিখা।

আজ বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) সকালে বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠ পুত্র শহীদ শেখ কামালের ৭২তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে বনানী কবরস্থানে তার কবরে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর তিনি এ মন্তব্য করেন।

ওবায়দুল কাদের প্রথমে আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে পরে আওয়ামী লীগের পক্ষে দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে নিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, শহীদ শেখ কামাল বহুমুখী সৃজনশীল প্রতিভার অধিকারী ও লাখ-কোটি তরুণের দীপ্ত-প্রজ্বলিত শিখা।

এ সময় আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের মধ্যে সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাক, অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ, আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাছিম, হাছান মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন মির্জা আজম, এস এম কামাল হোসেন, দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, উপ-দপ্তর সম্পাদক সায়েম খানসহ অন্য নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

আওয়ামী লীগ নেতাদের শ্রদ্ধা নিবেদনের পরে দলের সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনের নেতাকর্মীরা শহীদ শেখ কামালের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

এর আগে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ধানমন্ডি আবাহনী ক্লাবে শহীদ শেখ কামালের প্রতিকৃতিতে নেতাদের সঙ্গে নিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্যেষ্ঠ পুত্র, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও ক্রীড়া সংগঠক শহীদ শেখ কামালের ৭২তম জন্মবার্ষিকী বৃহস্পতিবার। শহীদ শেখ কামাল ১৯৪৯ সালের এ দিনে তদানীন্তন গোপালগঞ্জ মহকুমার টুঙ্গীপাড়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের কালো রাত্রিতে স্বাধীনতাবিরোধী দেশি-বিদেশি চক্রান্তের অংশ হিসেবে ঘাতকরা বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করে। মাত্র ২৬ বছর বয়সে জাতির পিতাসহ সপরিবারে মানবতার এ ঘৃণ্য শত্রুদের বর্বরোচিত হত্যাযজ্ঞের শিকার হয়ে শেখ কামালও প্রাণ হারান।


© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | এনপিনিউজ৭১.কম
Developed BY Rafi It Solution