মঙ্গলবার, ১৫ Jun ২০২১, ০৬:৪৫ পূর্বাহ্ন

সুন্দরগন্জ ইউপি নির্বাচনে জাপার তিন নেতা

সুলতান সুজন/ রংপুর ২ জুন 

২০২১সালের জানুয়ারির ১ম দিকে সম্ভাব্য হতে যাচ্ছে সুন্দরগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। এরিমধ্যে শুরু হয়েছে সম্ভাব্য প্রার্থীদের দৌড়ঝাপ।স্থানীয় নির্বাচন দলীয় প্রতীকে অনুষ্ঠিত হওয়ার কারনে অন্যান্য দলের ন্যায় অংশগ্রহণ করবে জাতীয় পার্টি। বর্তমান স্থানরয় সংসদ জাতীয় পার্টির হওয়ায় সবাই আশংকা করছে সকল ইউনিয়নে মূল লড়াই হবে জাতীয় পার্টির সাথে। সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের হালচাল নিয়ে আজ আজ তুলে ধরা হচ্ছে জাতীয় পার্টির সাবেক ৩চেয়ারম্যান এর বর্তমান অবস্থা।
আনছার আলী
সরদার (সোনারায় ইউনিয়ন) সুন্দরগন্জ উপজেলা জাতীয় পার্টির বয়োজ্যেষ্ঠ নেতাদের মধ্যে সবার কাছে সম্মানিত ব্যক্তি আনছার আলী সরদার।। যার রাজনৈতিক জীবন শুরু পল্লীবন্ধু এরশাদ এর শাষন আমল হতে।।।বর্তমানে তিনি সুন্দরগন্জ উপজেলা জাতীয় পার্টির সিনিয়র সহ সভাপতির এবং ২নং সোনারায় ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির সভাপতির দায়িত্ব পালন করতেছেন। ১৯৯৭ থেকে ২০০১পযন্ত সোনারায় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এর দায়িত্ব পালন করেন এবং এলাকার অনেক উন্নয়নমূলক কাজ করেন।রাজনীতির বাহিরে শিক্ষক হিসাবে সবার কাছে সম্মানিত আনছার আলী সরদার। ১৯৬৮-১৯৭৪ সাল পযন্ত লালমনিরহাট জেলার মহেন্দ্রনগর হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক হিসেবে শিক্ষকতা জীবন শুরু করেন । ১৯৭৪-১৯৮৫সাল পযন্ত বর্তমান সুন্দরগঞ্জ আমিনা সরকারি বাালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৮৬-১৯৯৬ সাল পযন্ত আব্দুল মজিদ সরকারি বালক বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করেন রিটায়ার্ড কালে প্রধান শিক্ষক হিসাবে শিক্ষকতা জীবন শেষ করেন।।।আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সম্ভাব্য জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করবেন এবং উনি আশাবাদী জীবনের শেষলগ্নে এসে সোনারাবাসী তাকে পুনরায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত করবেন। কারন ইতিমধ্যে স্থানীয় সাংসদ এর সহযোগিতায় তার ইউনিয়নে ব্যাপক উন্নয়নমূলক কাজ করে যাচ্ছেন।
এনামুল হক মন্টু
(রামজীবন ইউনিয়ন) সুন্দরগঞ্জ উপজেলা জাতীয় পার্টির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং রামজীবন ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির সভাপতি এনামুল হক মন্টু। যার রাজনৈতিক জীবন শুরু ১৯৮৫সালে জাতীয় পার্টির ছাত্র রাজনীতির মাধ্যমে। পরবর্তীতে উপজেলা জাতীয় পার্টির গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন এবং এরশাদ মুক্তি আন্দোলনের লড়াকু সৈনিক ছিলেন।২০১১-২০১৫ সালে রামজীবন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন।চেয়ারম্যান হিসাবে তার ছিল ব্যাপক জনপ্রিয়তা এবং এলাকার ব্যাপক কাজ করেছেন এবং বর্তমানে স্থানীয় জাতীয় পার্টির মাননীয় সংসদ সদস্যের সহযোগিতা নানা উন্নয়নমূলক কাজ করে যাচ্ছেন। আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে জাতীয় পার্টি হতে লাঙ্গল প্রতীকে নির্বাচন করবেন তা অনেকটাই নিশ্চিত। পাশাপাশি জয়ের ব্যাপারে অনেক আশাবাদী।
এটিএম মাহাবুব আলম শাহীন
(ধোপাডাংগা ইউনিয়ন) এটিএম মাহাবুব আলম শাহীন ১৯৯১ সালে রাজশাহী ইন্জিনিয়ারিং বিশ্ববিদ্যালয়(রুয়েট) হতে ১৯৯১সাল ম্যাকানিক্যাল ইন্জিনিয়ারিং এর উপর বিএসসি সম্পূর্ন করে চাকুরী জীবন শুরু করেন এবং ২০০৯সালে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় CODA হতে HRM এর উপর মাষ্টার্স শেষ করেন।। ২০১০সালে চাকুরী জীবন শেষ করে জাতীয় পার্টির রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হন এবং ২০১১ হতে ২০১৫ পযন্ত ধোপাডাংগা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন এবং ক্লীন ইমেজ এর চেয়ারম্যান হিসাবে সবার সম্মান অর্জন করেন।বর্তমানে তিনি ধোপাডাংগা ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে জাতীয় পার্টি হতে লাঙ্গল প্রতীকে নির্বাচন করার জন্য পুরো ইউনিয়ন চষে বেড়াচ্ছেন এবং আশাবাদী নির্বাচনে বিপুল ভোটে জয়ী হবেন।।


© All rights reserved © 2020-21 npnews71.com
Developed BY Akm Sumon Miah